ই-শ্রম (E-Shram) কার্ড- ২ লক্ষ টাকার বীমা | E Shram Card Benefits in Bengali

দেশের সংগঠিত এবং অসংগঠিত শ্রমিকদের জন্য কেন্দ্র সরকার বিভিন্ন রকমের যোজনা শুরু করে। যাতে সমস্ত শ্রমিক সশক্তিকরণ এবং আত্মনির্ভর হয়ে ওঠে। কিন্তু অনেক শ্রমিক সরকারের বিভিন্ন যোজনা বা স্কিম গুলির সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়। এই কারণেই ভারত সরকার সম্প্রতি ই শ্রম পোর্টাল চালু করেছে। ই-শ্রম (E Shram) কার্ডের মাধ্যমে সরকার বিভিন্ন শ্রমিকের তথ্য সংগ্রহ করবে এবং সেই তথ্যের ভিত্তিতে শ্রমিকদের বিভিন্ন সরকারি সুবিধা প্রদান করবে।

E Shram Card Benefits in Bengali

E-Shram Card Benefits in Bengali

ই-শ্রম কার্ড একনজরে 

প্রকল্পের নাম ই-শ্রম (E Shram) কার্ড 
শুরুর তারিখ 26 আগস্ট 2021
দপ্তরকেন্দ্রীয় শ্রম এবং কর্মসংস্থান মন্ত্রালয় 
সুবিধাভোগী ভারতের শ্রমিক 
উদ্যোক্তা ভূপেন্দ্র যাদব (কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রী)
ওয়েবসাইট eshram.gov.in 
ফোন নম্বর 011-23389928

ই-শ্রম কার্ডের উদ্দেশ্য (Objectives of E Shram Card )

  • ভারতের সমস্ত শ্রেনীর অসংগঠিত শ্রমিকদের তথ্য সংগ্রহ করা এবং তাদের কাজের ভিত্তিতে বিভক্ত করা।
  • অসংগঠিত শ্রমিকদের স্বতন্ত্র পরিচয় পত্র হিসাবে ই শ্রম কার্ড চালু করা।
  • ভারতের অসংগঠিত শ্রমিক সরকারি বিভিন্ন যোজনার সুবিধা পাই তার ব্যবস্থা করা।

ই-শ্রম কার্ডের সুবিধা (Benefits of E Shram Card)

  • ই শ্রম কার্ডে নাম নথিভুক্ত থাকা শ্রমিকের দুর্ঘটনায় মৃত্যু হলে তার পরিবারকে এককালীন দু লক্ষ টাকা দেবে কেন্দ্র সরকার।
  • শ্রমিক যদি দুর্ঘটনার কারণে স্থায়ীভাবে অক্ষম হয়ে যান তাহলেও তাকে এককালীন দু লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।
  • আশিক ভাবে অক্ষম হলে শ্রমিককে এককালীন এক লক্ষ টাকা দেওয়া হবে।
  • তাছাড়াও ই শ্রম কার্ডে নাম নথিভূক্ত থাকলে অসংগঠিত শ্রমিক কেন্দ্র সরকারের বিভিন্ন যোজনার সুবিধা পাবেন।

ই-শ্রম কার্ডের সুবিধা কারা কারা পাবে

ভারতের সমস্ত অসংগঠিত শ্রমিক অর্থাৎ যারা কোন সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত নয় তারা সকলেই ই শ্রম কার্ডের সুবিধা পাবে। কোন কোন ধরনের শ্রমিক এতে সুবিধা পাবে সেগুলি নিচে দেওয়া হল-

  • পরিযায়ী শ্রমিক, নির্মাণ কর্মী, ক্ষুদ্র এবং প্রান্তিক চাষী ক্ষুদ্র এবং প্রান্তিক চাষী।
  • কৃষি কাজে নিযুক্ত শ্রমিক, ভাগচাষী জেলে।
  • পশু পালনে নিযুক্ত বিভিন্ন ব্যক্তি, চামড়া শ্রমিক, লবণ
  • শ্রমিক ইটভাটার কাজে নিযুক্ত শ্রমিক, পাথরের খনিতে কর্মরত শ্রমিক।
  • গাড়ীর চা, অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী, ফল বিক্রেতা, নাপিত
  • গৃহপরিচারিকা অটোরিকশা চালক শাকসবজি ও ফল বিক্রেতা সকলেই এই ই শ্রম কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

ই-শ্রম কার্ডে আবেদনের জন্য যোগ্যতা (E Shram Card Eligibility)

  • আবেদনকারীকে অবশ্যই অসংগঠিত শ্রমিক হতে হবে।
  • আবেদনকারীর বয়স 16 থেকে 59 বছরের মধ্যে হতে হবে।
  • EPFO এবং ESIC এর অন্তর্ভুক্ত সদস্যরা ই শ্রম কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবে না।
  • আবেদনকারী যদি ইনকাম ট্যাক্স বা আয় কর প্রদান করে থাকে তাহলে তিনি আবেদন করতে পারবেন না।

ই-শ্রম কার্ডে আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস (E Shram Card Important Documents )

  • আধার কার্ড
  • ব্যাংকের পাস বই
  • মোবাইল নম্বর
  • রেশন কার্ড

ই-শ্রম কার্ডের আবেদন প্রক্রিয়া (E Shram Card Application Process)

ই-শ্রম পোর্টাল ওপেন করে অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। প্রথমে ওয়েবসাইট ওপেন করে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। তারপর সমস্ত প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করে অ্যাপ্লাই করতে হবে।