লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প- যোগ্যতা, সুবিধা, আবেদন পদ্ধতি | Lakshmir Bhandar Prakalpa All Details in Bengali

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি ২০২১ সালে বিধানসভা ভোটের আগে বাংলার মহিলাদের সামাজিক নিরাপত্তা প্রদানের জন্য ইশতেহার প্রকাশ করেছিলেন। তাই ভোট পরবর্তী কয়েক মাসের মধ্যে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছেন তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য প্রকল্প হচ্ছে লক্ষীর ভান্ডার (Lakshmir Bhandar Prakalpa)। এই প্রকল্পটিতে ঘোষনা করা হয় যে, বাংলার বিবাহিত মহিলাদের মাসিক ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত আর্থিক সুবিধা দেবে এবং সমস্ত দায়বদ্ধতা রাজ্য সরকার বহন করবে।

Lakshmir Bhandar Prakalpa in Bengali

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প কি?

পশ্চিমবঙ্গ সরকার নিজের দুয়ারে ক্যাম্পের মাধ্যমে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পটি পরিচালনা করেছেন। এই লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলায় পিছিয়ে পড়া দরিদ্র সীমা নিচে বসবাসকারী পরিবার এবং কম আয় সম্পূর্ণ পরিবারকে প্রতিমাসে আর্থিক ভাবে সাহায্য করবে। রাজ্যের প্রত্যেক বিবাহিত মহিলারা এই প্রকল্পের আওতায় আসবে, পশ্চিমবঙ্গ অর্থমন্ত্রক এই আর্থিক সাহায্য করবে। এই লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের আওতায় রাজ্যের প্রায় প্রত্যেক মহিলারাই ৫০০-১০০০ টাকা প্রতি মাসে সরাসরি তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাচ্ছেন।

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প এক নজরে

প্রকল্পের নামলক্ষ্মীর ভান্ডার
রাজ্যপশ্চিমবঙ্গ
সাল২০২১ সাল
উদ্যোক্তামমতা ব্যানার্জি
দপ্তরঅর্থ মন্ত্রক
সুবিধা৫০০/১০০০ টাকা
কারা কারা সুবিধা পাবেরাজ্যের বিবাহিত মহিলা
E-mailduare [email protected]
হেল্পলাইন১০৭০ ২২১৪৩৫২৬

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের উদ্দেশ্য

  • মহিলাদের আর্থিকভাবে সাহায্য করা।
  • দৈনন্দিন কাজকর্মে মহিলাদের এই টাকা উপকৃত হবে।
  • বিবাহিত মহিলাদের আত্মনির্ভর করা।
  • রাজ্যের ST,SC মহিলাদের বিশেষভাবে আর্থিক সাহায্য করা।
  • বাংলার সমস্ত বিবাহিত মহিলারা আর্থিকভাবে পরিবারে স্বাচ্ছন্দতা বজায় রাখবে।

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের সুবিধা

  1. দরিদ্র সীমার নিচে বসবাসকারী মহিলাদের হাত খরচের টাকার জন্য অন্যের উপর নির্ভর করতে হবে না।
  2. ST এবং SC মহিলাদের লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পে ১০০০ টাকা এবং সাধারন মহিলাদের ৫০০ টাকা ভাতা দেওয়া হবে।
  3. হাতে আয়ের পরিমাণ বাড়বে।
  4. সমাজে মহিলাদের সামাজিক নিরাপত্তা প্রদান করতে সুবিধা হবে।
  5. মহিলাদের নিজস্ব অ্যকাউন্টে সরাসরি টাকা পাঠানো হবে।
  6. বাংলার মহিলাদের একটি প্রকল্পের আওতায় নিয়ে আসবে।
  7. রাজ্যের সভার প্রোগ্রাম এলাকার অর্থনীতি কিছুটা স্বাবলম্বী হবে

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পে আবেদনের যোগ্যতা

  1. আবেদনকারী কে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
  2. আবেদনকারীকে বিবাহিত হতে হবে।
  3. লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প শুধুমাত্র মহিলাদের জন্য।
  4. বিবাহিত মহিলাদের বয়স ২৫ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে হতে হবে।
  5. ব্যাংক অ্যকাউন্টের সঙ্গে মোবাইল নাম্বার অবশ্যই সংযুক্ত করতে হবে।

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

  • পাসপোর্ট সাইজ রঙিন ছবি
  • স্বাস্থ্য সাথী কার্ড
  • আধার কার্ডের জেরক্স
  • ব্যাংকের পাস বই
  • কাস্ট সার্টিফিকেট (যদি থাকে)

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন প্রক্রিয়া

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে আবেদনের জন্য দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে যোগাযোগ করতে হবে। তারপর সেখানে একটি ফর্ম দেওয়া হবে এবং ফর্ম টি পূরণ করে উপযুক্ত কাগজপত্র সঙ্গে নিয়ে আপনি দুয়ারে সরকারের লক্ষীর ভান্ডার কাম্পে জমা করবেন। লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের মাসিক ৫০০ টাকা থেকে ১০০০ টাকা ভাতা সুবিধা পাবেন। দুয়ারে ক্যাম্প ছাড়াও নিকটবর্তী বিডিও অফিসে দরকারি ফর্ম ফিল আপ করে এবং তার সাথে দরকারি সমস্ত ডকুমেন্ট এর জেরক্স জমা করেও এতে আবেদন করা যাবে।

👉 সরকারি প্রকল্প, সরকারি সুবিধার নতুন নতুন তথ্য মিস না করতে চাইলে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে Join হয়ে থাকুন