প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনা কি? | PMVVY Scheme- Full Details in Bengali

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনা শুরু হয়েছিল 4 মে 2017 তারিখে। এটি একটি পেনশন স্কিম। এতে ভারতের প্রবীণ নাগরিকদের মাসিক, ত্রৈমাসিক, অর্ধবার্ষিক বা বার্ষিক পেনশন দেওয়া হবে। যাদের বয়স 60 বছর বা এর বেশি তারা এই স্কিম বা যোজনার সুবিধা পাবে। প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনাতে জমাকৃত টাকার উপর ১০ বছর ধরে পেনশনের আকারে বেশ ভালো অঙ্কের সুদ দেবে কেন্দ্র সরকার।

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনা সম্পর্কে আরো বিস্তারে জানতে বা এর সমস্ত সুবিধা জানতে আজকের এই লেখাটি সম্পূর্ণ পড়ুন। আশা করছি সমস্ত প্রশ্নের উত্তর পাবেন।

বিষয় সূচীঃ-

PMVVY Scheme Full Details in Bengali

PMVVY Scheme- Full Details in Bengali

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনা একনজরে

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনা
স্কিমের নাম প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনা
শুরুর তারিখ4 মে 2017
নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা  LIC
সুবিধাভোগী ভারতের প্রবীণ নাগরিক (যাদের বয়স ৬০ বছরের বেশি)
সুবিধাপেনশন 
উদ্যোক্তা কেন্দ্র সরকার 

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনা কি? (What is PMVVY Scheme)

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনা হল একটি পেনশন মুলক স্কিম বা যোজনা। ভারতের প্রবীণ বা বয়স্ক নাগরিক, যাদের বয়স ৬০ বছরের বেশি তারা এই যোজনার সুবিধা পাবে। এই যোজনায় এককালীন নির্দিষ্ট পরিমানে টাকা জমা করার পর আগামী ১০ বছর ধরে জমাকৃত টাকার ভিত্তিতে মাসিক পেনশন দেওয়া হয়। ১০ বছর সম্পূর্ন হওয়ার পর ঐ মোট জমা করা টাকার সম্পূর্নটাই ফেরতও দেওয়া হয়।

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনার উদ্দেশ্য (Objectives of PMVVY Scheme)

  • প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনার প্রধান উদ্দেশ্য হল ভারতের প্রবীণ নাগরিকদের পেনশন প্রদান করা।
  • অবসরকালীন সময়ে একজন ব্যাক্তি যেন অন্য কারোর উপর নির্ভরশীল না হয় তার ব্যাবস্থা করা।
  • ভারতের প্রবীণ নাগরিকদের আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করে তোলা।

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনার সুবিধা (Benfits of PMVVY Scheme)

  • প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনা প্রথমে ভারত সরকার দ্বারা পরিচালনা করা হত। পরে LIC কে এটির পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয়। LIC ভারত সরকার দ্বারা পরিচালিত ইনস্যুরেন্স সংস্থা। তাই এই যোজনার ক্ষেত্রে জমাকৃত টাকা নিরাপদ থাকে।
  • ৬০ বছর বয়সী ব্যাক্তিরা এই যোজনাতে নিজেদের টাকা জমা রাখে ১০ বছরের জন্য। এই ১০ বছর ধরে ৭% এর বেশি সুদের হারে পেনশন দেওয়া হয়। ১০ বছর পরে পুরো টাকাটাই আবার ফেরফ পাওয়া যায়।

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনার সুবিধা কারা পাবে?

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনার সুবিধা পাবে ভারতের প্রবীণ নাগরিক অর্থাৎ যাদের বয়স ৬০ বছরের বেশি। ৬০ বছরের কম বয়স হলে এই যোজনা বা স্কিমের সুবিধা পাওয়া যাবে না।

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনার গুরুত্বপূর্ণ বিষয়

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনার বেশ কিছু বিষয় রয়েছে যেগুলি নীচে জানানো হল-

  • প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনাতে ১০ বছরের জন্য একটি নির্দিষ্ট পরিমানে টাকা জমা করতে হয়। ঐ জমাকৃত টাকার উপর পেনশন দেওয়া হয়,
  • এই ১০ বছরের মধ্যে যদি ঐ ব্যাক্তির মৃত্যু হয় তাহলে পুরো টাকাটা নমিনিকে দেওয়া হয়।
  • ১০ বছর সময় সম্পূর্ণ হওয়ার আগে পুরো টাকা তুলে নেওয়া যাবে। তবে টাকার তুলে নেওয়ার কোনো বৈধ কারন দেখাতে হবে। যেমন- পরিবারের কোনো সদস্যের চিকিৎসা বা কারো বিবাহের জন্য ইত্যাদি।
  • ১০ বছর সময় সম্পূর্ণ হওয়ার আগে টাকা তুললে মোট টাকার উপর 2% (পেনাল্টি চার্জ) কেটে নেওয়া হয়। ধরুন আপনি যদি 10 লক্ষ টাকা জমা করে থাকেন তাহলে আপনি পাবেন 9 লক্ষ 80 হাজার টাকা।

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনা ন্যুনতম এবং সর্বাধিক পেনশন 

পেনশনের বিকল্পন্যুনতম পেনশন সর্বাধিক পেনশন 
মাসিক 1,000 টাকা 9,250 টাকা 
ত্রৈমাসিক 3,000 টাকা 27,750 টাকা 
অর্ধবার্ষিক6,000 টাকা  55,500 টাকা 
বার্ষিক 12,000 টাকা 1,11,000 টাকা 

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনা সুদের হার

পেনশনের বিকল্প সুদের হার 
মাসিক 7.40%
ত্রৈমাসিক 7.45%
অর্ধবার্ষিক7.52%
বার্ষিক 7.60%

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনায় টাকা জমা করার প্রক্রিয়া

প্রথমে এই স্কিমটি পরিচালনা করত ভারত সরকার। পরে LIC এটি পরিচালনা করে। অফলাইন এবং অনলাইন যেকোনো পদ্ধতিতেই এই যোজনায় টাকা জমা করা যায়। অনলাইনে টাকা জমা করলে LIC এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে এর টাকা জমার একটি প্রক্রিয়া রয়েছ।

সবথেকে ভালো হচ্ছে আপনি আপনার নিকটবর্তী LIC এর অফিসে টাকা জমা করতে পারেন। আর এটাই হচ্ছে অফলাইনে প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনায় টাকা জমা করার প্রক্রিয়া।

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনায় কি কি ডকুমেন্ট লাগবে?

  • আঁধার কার্ড
  • প্যান কার্ড
  • ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর
  • মোবাইল নম্বর
  • পাসপোর্ট সাইজের ছবি

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনায় লোনের সুবিধা

প্রধানমন্ত্রী ভায়া বন্দনা যোজনার অধীনে টাকা জমা রাখলে ঐ জমাকৃত টাকার উপর 75% পর্যন্ত টাকার লোন নেওয়া যাবে। ধরা যাক, কোনো ব্যাক্তি এই প্রকল্পের অধীনে ১০ লক্ষ টাকা রেখেছে। তাহলে ঐ ব্যাক্তি সর্বাধিক 7 লক্ষ 50 হাজার টাকার লোন নিতে পারবে।